মুজাহিদুল ইসলাম, ঔষধ ও স্বাস্থ্য পরামর্শকঃ
ফেক্সোফেনাডিন
উপস্থাপন:
ফেনাডিন ৬০ ট্যাবলেট: প্রতিটি ট্যাবলেটে আছে ফেক্সোফেনাডিন হাইড্রোক্লোরাইড ইউএসপি ৬০ মিগ্রা.।
ফেনাডিন ১২০ ট্যাবলেট: প্রতিটি ট্যাবলেটে আছে ফেক্সোফেনাডিন হাইড্রোক্লোরাইড ইউএসপি ৬০ মিগ্রা.।
ফেনাডিন ১৮০ ট্যাবলেট: প্রতিটি ট্যাবলেটে আছে ফেক্সোফেনাডিন হাইড্রোক্লোরাইড ইউএসপি ৬০ মিগ্রা.
নির্দেশনা এবং ব্যবহার:
সিজনাল এলার্জিক রাইনাইটিস:
ফেক্সোফেনাডিন প্রাপ্ত বয়স্ক এবং ২ বছর বা এর বেশি বয়সের শিশুদের সিজনাল এলার্জিক রাইনাইটিস জনিত সকল উপসর্গসমূহকে দুর করে। হাঁচি, নাক দিয়ে পানি পড়া, নাকের ও গলার চুলকানি, ত্বকের চুলকানি এবং চোখ লাল হওয়া উপশমে নির্দেশিত।
ক্রনিক ইডিওপ্যাথিক আর্টিকেরিয়া:
ফেক্সোফেনাডিন ৬ মাস বয়স থেকে শুরু করে বয়স্ক, সব বয়সের রোগীর ক্রনিক ইডিওপ্যাথিক আর্টিকেরিয়ার ফলে ত্বকের উপসর্গগুলোকে দুর করতে নির্দেশিত।
সেবনমাত্রা ও সেবনবিধি:
ফেক্সোফেনাডিন ট্যাবলেট:
সিজনাল এলার্জিক রাইনাইটিস:
১২ বছর বা এর বেশি বয়সের শিশুদের জন্য এবং বয়স্কদের ক্ষেত্রে: ১২০ মিগ্রা অথবা ১৮০ মিগ্রা প্রতিদিন অথবা ৬০ মিগ্রা দিনে ২ বার। যেসব রোগীদের কিডনী সংক্রান্ত জটিলতা রয়েছে, তাদের জন্য শুরুতে প্রতিদিন ৬০ মিগ্রা. ১ বার করে খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে।

৬-১১ বছর বয়সের শিশুদের জন্য: ৩০ মিগ্রা দিনে ২ বার। যেসব রোগীদের কিডনী সংক্রান্ত জটিলতা রয়েছে, তাদের জন্য শুরুতে প্রতিদিন ৩০ মিগ্রা. ১ বার করে খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে।

পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া:
ফেক্সোফেনাডিন খেলে ঘুম ঘুম ভাব সহ অন্যান্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া পরিলক্ষিত হয়না এবং এটা ডোজ এর সাথে সম্পর্কযুক্ত নয়। তবে সম্ভাব্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া গুলোর মধ্যে রয়েছে ভাইরাল ইনফেকশনের মত উপসর্গ যেমন, ঠান্ডা, বমি বমি ভাব, ডিসমেনোরিয়া, ক্লান্তিভাব, মাথা ব্যাথা এবং গলায় চুলকানি।

অন্যান্য ঔষধের সাথে প্রতিক্রিয়া:
ফেক্সোফেনাডিন খাওয়ার সাথে সাথেই এলুমিনিয়াম এবং ম্যাগনেশিয়াম যুক্ত এন্টাসিড, ইরিথ্রোমাইসিন কিংবা কিটোকোনাজল খাওয়া উচিত নয় কারণ এতে ফেক্সোফেনাডিন এর শোষন বেড়ে যেতে পারে।

প্রতিনির্দেশনা:
ফেক্সোফেনাডিন হাইড্রোক্লোরাইড অথবা এর যেকোন উপাদানের প্রতি যাদের অতি মাত্রায় সংবেদনশীলতা রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে নির্দেশিত নয়।

গর্ভাবস্থায় ব্যবহার:
যেহেতু গর্ভকালীন সময়ে এর ব্যবহারে সীমিত অভিজ্ঞতা রয়েছে, তাই শুধুমাত্র একান্ত প্রয়োজন হলে গর্ভবতী মহিলাদের দেওয়া যেতে পারে।

স্তন্যদানকালে ব্যবহার:
স্তন্যদানকালীন সময়ে মায়েরা ফেক্সোফেনাডিন হাইড্রোক্লোরাইড সেবন করলেও এতে শিশুর ক্ষেত্রে কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়না। তাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একাডেমী অব পেডিয়াট্রিক্স স্তন্যদানকালে ফেক্সোফেনাডিনকে মায়েদের জন্য সুপারিশ করেছে।

শিশুদের ক্ষেত্রে ব্যবহার:
ফেক্সোফেনাডিন হাইড্রোক্লোরাইড ৬ মাস বয়স থেকেই শিশুদেরকে দেওয়া যায়।
পূর্বসতর্কতাঃ
ফেক্সোফেনাডিন কিডনী দিয়ে নিঃসৃত হয় বলে জানা গেছে এবং যে সকল রোগীর বৃক্কের কার্যকারিতা কম, তাদের ক্ষেত্রে এই ঔষধের বিষক্রিয়ায় সম্ভাবনা বেশী। যেহেতু বৃদ্ধ লোকদের ক্ষেত্রে বৃক্কের কার্যকারিতা কম হওয়ার সম্ভাবনা বেশী থাকে তাই তাদের ক্ষেত্রে ব্যবহারের সময় ওষুধের মাত্রা নির্ধারণ ও বৃক্কের কার্যকারিতা সব সময় বিবেচনায় রাখতে হবে। যাদের বৃক্কের কার্যকারিতা কম, তাদের ক্ষেত্রে প্রাথমিক মাত্রা দৈনিক ৬০ মি.গ্রা. হওয়া উচিত।
সরবরাহ:
ফেক্সোফেনাডিন ৬০ ট্যাবলেটে : প্রতিটি বক্সে রয়েছে ৩/১০ টি ফিল্ম কোটেড ট্যাবলেট ব্লিস্টার প্যাকে।
ফেক্সোফেনাডিন ১২০ ট্যাবলেটে : প্রতিটি বক্সে রয়েছে ২/১০, ৫/১০ টি ফিল্ম কোটেড ট্যাবলেট ব্লিস্টার প্যাকে।
ফেক্সোফেনাডিন ১৮০ ট্যাবলেটে : প্রতিটি বক্সে রয়েছে ২/১০ টি ফিল্ম কোটেড ট্যাবলেট ব্লিস্টার প্যাকে।